:: Welcome to New Site Of Govt Shaheed Smrity College, Muktagacha ::

Central Notice

Principal's Speech

I am very much glad to be a member of Govt shaheed smrity college,muktagacha .I am very much glad to be a member of Govt shaheed smrity college,muktagacha .I am very much glad to be a member of Govt shaheed smrity college,muktagacha .I am very much glad to be a member of Govt shaheed smrity college,muktagacha.I am very much glad to be a member of Govt shaheed smrity college,muktagacha .  read more...

Vice Principal's Speech

I am very much glad to be a member of Govt shaheed smrity college,muktagacha.I am very much glad to be a member of Govt shaheed smrity college,muktagacha .I am very much glad to be a member of Govt shaheed smrity college,muktagacha .I am very much glad to be a member of Govt shaheed smrity college,muktagacha.I am very much glad to be a member of Govt shaheed smrity college,muktagacha .  read more...

কলেজ পরিচিতি

ঐতিহ্যবাহী মুক্তাগাছা উপজেলায় ষাটের দশকের প্রথমদিকে উচ্চ শিক্ষা লাভের জন্য কোন প্রতিষ্ঠান ছিলনা । উচ্চ শিক্ষার জন্য একটি কলেজ প্রতিষ্ঠা ছিল মুক্তাগাছাবাসীর প্রাণের দাবী । এ দাবীকে বাস্তবায়ন করতে এগিয়ে আসেন রাজনীতিবিদ, শিক্ষাবিদ, ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। ১৯৬৭ সালে কলেজ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে মুক্তাগাছা পৌর কমিউনিটি হলে (বর্তমান মুক্তাগাছা পৌরপাঠাগার) তৎকালীন পার্লামেন্টের সেক্রেটারী জনাব কেরামত আলী তালুকদারকে আহবায়ক করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয় । স্থানীয় জনগনের আর্থিক সহায়তায় ১৯৬৭ সালে মহারাজা সূর্যকান্ত আচার্য্য চৌধুরীর পরিত্যক্ত বাড়িতে অত্র কলেজের যাত্রা শুরু হয় । তখন এ কলেজের নাম ছিল মুক্তাগাছা কলেজ । প্রতিষ্ঠালগ্নে ও পরবর্তী সময়ে অনেক শিক্ষানুরাগী অর্থ সম্পদ দিয়ে কলেজকে সহযোগিতায় এগিয়ে আসেন । দাতাদের মধ্যে অন্যতম জনাব চিন্তাহরণ সাহা ১৯৭৪ সালে কাজলকোটা বিল এলাকায় কলেজের জন্য ৪ একর ৪৩ শতাংশ জমি দান করেন । কলেজের প্রথম অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন অধ্যাপক মোঃ আবুল বাশার । স্বাধীনতা যুদ্ধে মুক্তাগাছা কলেজের ছাত্ররা মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয় অংশ গ্রহণ করে এবং কয়েকজন ছাত্র শহীদ হন । উক্ত বীর শহীদ ছাত্রসহ সকল শহীদ মুক্তিযোদ্ধার স্মরণে সদ্য স্বাধীন দেশে ১৯৭২ সনে তৎকালীন গর্ভনিংবডির এডহক কমিটির প্রথম সভায় সভাপতি জনাব খন্দকার আব্দুল মালেক শহীদুল্লাহ’র প্রস্তাবক্রমে কলেজের নতুন নামকরণ করা হয় ‘‘শহীদ স্মৃতি কলেজ’’ । কলেজের লেখাপড়ার মান, সুনাম ও ঐতিহ্য বিচারে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ০১-০৩-১৯৮০ সালে কলেজটিকে জাতীয়করণ করেন এবং নতুন নামকরণ হয় ‘‘শহীদ স্মৃতি সরকারি কলেজ’’ ।

Developed by : Freelance IT Lab, Mymensingh